কোকোর জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে সোনারগাঁও থানা স্বেচ্ছাসেবক দলের দোয়া মাহফিল

সান নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম:

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া কনিষ্ঠপুত্র আরাফাত রহমান কোকোর ৫২তম জম্মবার্ষিকী উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও থানা স্বেচ্ছাসেবক দলের উদ্যোগে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

১৩ আগস্ট শুক্রবার বিকেলে সোনারগাঁও উপজেলার জামপুর ইউনিয়নে এই দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।  দোয়া মাহফিলে প্রয়াত আরাফাত রহমান কোকোর আত্মার মাগফেরাত কামনা করা হয়।  একই সঙ্গে বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সুস্বাস্থ্য কামনা ও বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের দীর্ঘায়ু কামনা করেও দোয়া পালন করা হয়।

IMG 20210813 212937

নারায়ণগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সহ-সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহ আলম হোসাইনের সভাপতিত্বে দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন- সোনারগাঁও থানা যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক ও জামপুুর ইউনিয়ন যুবদলের আহ্বায়ক আমির হোসেন, সোনারগাঁও থানা স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা নজরুল ইসলাম, জামপুর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা আফজাল হোসেন, জামপুর ইউনিয়ন যুবদলের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক মোহাম্মদ মিন্টু, জামপুর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড যুবদলের সভাপতি হাফিজুর রহমান, ছাত্রদল নেতা ফাহিম ভুঁইয়া সহ স্বেচ্ছাসেবক দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা।

এর আগে নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা শাহ আলম হোসাইন বলেন, ১/১১ এর সময় দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের পাশাপাশি আরাফাত রহমান কোকোও রক্ষা পাননি।  তিনি অসুস্থ ছিলেন।  তারপরও তাঁর উপর নির্যাতন চালানো হয়েছিল।  নির্যাতনের কারণে তিনি আরও অসুস্থ হয়ে পড়েন।  পরে মালয়েশিয়ায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়।  আমরা মরহুম আরাফাত রহমান কোকোর বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এই দোয়া ও মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালের ২৪ জানুয়ারি আরাফাত রহমান কোকো মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরের একটি হাসপাতালে মারা যান। পরে ২৮ জানুয়ারি তাঁর মরদেহ দেশে এনে ওই দিনই বনানী কবরস্থানে দাফন করা হয়।