হেফাজত ইসলামের কেন্দ্রীয় নেতার সমর্থিত প্রার্থী পেলো নৌকা!

সান নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম:

কয়েক মাস পূর্বে নারায়ণগঞ্জের সদর উপজেলার আলীরটেক ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে এই ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান জাকির হোসেনকে নিয়ে নির্বাচনী মাঠে নামেন বাংলাদেশ হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক প্রচার সম্পাদক ও নারায়ণগঞ্জ জেলা হেফাজত ইসলামের সমন্বয়ক মাওলানা ফেরদাউসুর রহমান।

IMG 20211015 200232

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও জাকির হোসেনকে নিযে প্রচারণা চালান ফেরদাউসুর রহমান। পরবর্তীতে একটি ধর্মীয় অনুষ্টানের আয়োজন করে সেখানে জাকির হোসেনকে চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চাওয়ার দাবি তোলা হয়। যে অনুষ্ঠানের আয়োজক ছিলেন জাকির হোসেন ও উদ্যোক্তা ছিলেন মাওলানা ফেরদাউসুর রহমান।

IMG 20211015 200212

গত ৯ অক্টোবর বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতীকে মনোনিত হোন আলীরটেক ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান মতিউর রহমান মতি। স্বতন্ত্র প্র্রার্থী হিসেবে নির্বাচনের ঘোষণা দেন জাকির হোসেন। এখানে সবচেয়ে জনপ্রিয় চেয়ারম্যান প্রার্থী আওয়ামীলীগ নেতা সায়েম আহামেদ সহ তিনজনই নৌকা প্রতীক চান। মতি নৌকা পাওয়ার পর স্বতন্ত্র প্রার্থী জাকির হোসেনের পক্ষে ফেসবুুকে প্র্রতিদিন প্রচারণা চালান মাওলানা ফেরদাউসুর রহমান। এদিকে ১৫ অক্টোবর শুক্রবার মতিউর রহমান মতির নৌকা প্রতীক বাতিল করে জাকির হোসেনকে নৌকা প্রতীক তুলে দেয় আওয়ামীলীগ। যে কারনে ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীরা বলছেন-হেফাজত ইসলামের কেন্দ্রীয় নেতা মাওলানা ফেরদাউসুর রহমানের প্রার্থীই পেলো নৌকা প্রতীক!

অন্যদিকে জানাগেছে, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি মহান স্বাধীনতার স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, আওয়ামীলীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা এবং নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে আওয়ামীলীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোটের সংসদ সদস্য প্রার্থী একেএম সেলিম ওসমানের নির্বাচনী ক্যাম্পে আগুন জ্বালানো ও লুটপাটের মামলার আসামি আলীরটেক ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান জাকির হোসেন।

২০১৮ সালের নির্বাচনের ওই মামলায় জাতীয় সংসদ নির্বাচন বানচালেরও অভিযোগ ছিল তার বিরুদ্ধে৷এছাড়া হেফাজতে ইসলামের বিভিন্ন কর্মসূচিতে অর্থায়ন করারও অভিযোগ রয়েছে জাকির হোসেনের বিরুদ্ধে৷ সেই জাকির হোসেনই এবারের নির্বাচনে পেয়েছেন নৌকা প্রতীক৷ এ নিয়ে দলীয় নেতা-কর্মীদের মধ্যে সমালোচনা তৈরি হয়েছে৷

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত ২০১৮ সালের ২৩ ডিসেম্বর দিবাগত রাতে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কয়েকদিন পূর্বে নগরীর পাইকপাড়ার নয়াপাড়া এলাকায় মহাজোটের প্রার্থী বর্তমান সংসদ সদস্য একেএম সেলিম ওসমানের নির্বাচনী ক্যাম্পে হামলা-ভাঙচুর ও লুটপাট চলে৷ নির্বাচনের বানচালের চেষ্টায় সংঘটিত ওই ঘটনায় ২৫ ডিসেম্বর এমপির অনুসারী এনামুল হক রিয়াজ মামলা করেন৷ ওই মামলায় ৭৪ জনকে এজাহারনামীয় আসামি করা হয়৷ মামলার ৭৪ নম্বর আসামি জাকির হোসেন৷

মামলার অভিযোগে বলা হয়, জাকিরসহ এজাহারনামীয় ৭৪ জনসহ অজ্ঞাত আরও ১০-১৫ জন আসামি মহাজোটের প্রার্থী সেলিম ওসমানের পাইকপাড়ার নয়াপাড়া ক্যাম্পে হামলা করে৷ ক্যাম্পের ভেতর বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি সংযুক্ত পোস্টার ছিঁড়ে ফেলে৷ ক্যাম্পে ভাঙচুর চালিয়ে আগুন জ্বালিয়ে দেয়৷ সেই আগুন নেভায় ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় লোকজন৷ ক্যাম্পে থাকা অডিও প্লেয়ার, মাইক লুট করে আসামিরা৷

আরও জানা গেছে, গত শনিবার নৌকার মনোনীত প্রার্থী হিসেবে বর্তমান চেয়ারম্যান মতিউর রহমানকে ঘোষণা করা হলেও তা বাতিল করে সাবেক চেয়ারম্যান জাকির হোসেনকে দেওয়া হয়েছে মনোনয়ন৷ ১৫ অক্টোবর শুক্রবার বিকেলে জাকির হোসেন অনুসারী কর্মীদের সাথে নিয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে দলীয় মনোনয়নের কাগজও সংগ্রহ করেছেন৷

দলীয় একটি সূত্র বলছে, নারায়ণগঞ্জের এক এমপির পছন্দের প্রার্থী ছিলেন মতিউর রহমান৷ তার লবিংয়েই নৌকার মনোনয়ন পেয়েছিলেন তিনি৷ তবে প্রভাবশালী আরেক এমপির পছন্দের প্রার্থী ছিলেন জাকির হোসেন৷ তাকে দলীয় প্রার্থী করতেই মতিউর রহমান সরে দাঁড়িয়েছেন। এদিকে সহিংসতা মামলার আসামিকে নৌকার মনোনয়ন দেয়ায় ক্ষোভ রয়েছে তৃণমূলে৷