যুবদলের আহ্বায়ক পদে প্রস্তাবনায় বিএনপি নেতার কারখানার বেতনভুক্ত কর্মচারী!

সান নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম:

নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবদলের আওতাধীন আড়াইহাজার উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক কমিটি গঠনের লক্ষ্যে ইতিমধ্যে কর্মীসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।  নেতাকর্মীরা ধারণা করছেন- যেকোনো সময় আড়াইহাজার উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক কমিটির অনুমোদন দিবে জেলা যুবদল।  কিন্তু উপজেলা আহ্বায়ক পদে প্রস্তাবিত কমিটির খসড়ায় বিএনপির এক নেতার ব্যক্তিগত কারখানার কর্মচারীকে রাখা হয়েছে।  এ নিয়ে স্থানীয় যুবদলের নেতাকর্মীদের মাঝে তীব্র সমালোচনা ও ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে।  বিএনপির ওই নেতার প্রতি যুবদলের নেতাকর্মীরা চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

ঘটনা সূত্রে জানাগেছে, জেলা যুবদলের আওতাধীন বিভিন্ন ইউনিট কমিটিগুলো ইতিমধ্যে গঠন শুরু হয়েছে।  যার মধ্যে আড়াইহাজার উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক কমিটি এখনও বাকি রয়েছে।  আড়াইহাজার উপজেলা যুবদলের কমিটির পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে নিতে কাজ করছেন জেলা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি মাহমুদুর রহমান সুমন।  তার পিতা এএম বদরুজ্জামান খান খসরু ছিলেন আড়াইহাজার উপজেলা বিএনপির সভাপতি।  তার মৃত্যুর পর রাজনীতিতে উদয় হন ব্যবসায়ী সুমন।

নেতাকর্মীরা জানান, জেলা যুবদলের নেতৃত্বকে পাস কাটিয়ে বিএনপি নেতা মাহমুদুর রহমান সুমন তার অনুগতদের নিয়ে একটি আহ্বায়ক কমিটির খসড়া যুবদলের বিভাগীয় টিমের নেতা জাকির হোসেনের কাছে জমা দিয়েছেন।  কমিটিতে জহিরুল ইসলাম জহিরকে আহ্বায়ক পদে রেখে এই কমিটি তিনি জমা দেন।  এমন খবর আড়াইহাজারে যুবদলের নেতাকর্মীদের মাঝে ছড়িয়ে পড়লে কঠোর সমালোচনা ও চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।

IMG 20211001 221757

এর কারন হিসেবে জানাগেছে, জহিরুল ইসলাম জহিরের আওয়ামীলীগের নেতাদের সঙ্গে সখ্যতা রয়েছে।  আড়াইহাজার হাইজাদী ইউনিয়ন পরিষদের আগামী নির্বাচনে নৌকা প্রতীক প্রত্যাশি উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুল্লাহ আল মামুন রাশেদের নির্বাচনী গণসংযোগে জহিরুল ইসলাম জহিরকে দেখা গেছে বলে এমন একটি ছবিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে।  আর সেই জহিরকে উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক পদে প্রস্তাবনা কমিটির খসড়া জমা দিয়েছেন বিএনপি নেতা সুমন।

আরও জানাগেছে, আড়াইহাজার উপজেলার জাউগড়া এলাকায় অবস্থিত বিএনপি নেতা মাহমুদুর রহমান সুমনের মালিকাধীন জাহিন স্পিনিং মিলে দীর্ঘ ১২ বছর যাবত কর্মচারী হিসেবে কর্মরত হয়েছে জহিরুল ইসলাম জহির।  ওই কারখানার বেতনভুক্ত কর্মচারী জহিরুল ইসলামকে আহ্বায়ক পদে মানতে নারাজ যুবদলের নেতাকর্মীরা।  এর আগে জেলা যুবদলকে ম্যানেজ করে জেলা যুবদলের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে জহিরুল ইসলাম জহিরকে সহ-সভাপতি পদে অধিষ্ট করতে কাজ করেন সুমন।  এর আগে বিএনপি ও এর অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের কোনো কমিটিতেই ছিলেন না জহির।  বিএনপি নেতা সুমনের আশীর্বাদে এখন জহির জেলা যুবদলের সহ-সভাপতি পদে রয়েছেন।  এখন সুমনের কারখানার বেতনভুক্ত কর্মচারী জহিরুল ইসলামকে আড়াইহাজার উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক পদে বসাতে চান তিনি।