খালেদা জিয়ার মুক্তি আর চাইবোনা, এখন একদফা আন্দোলন শুরু: সাখাওয়াত

সান নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম:

নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি ও নারায়ণগঞ্জের আলোচিত আইনজীবী নেতা অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান বলেছেন, বর্তমান স্বৈরাচারী সরকার দেশের মানুষের সকল অধিকার হরণ করেছে। দেশকে গণতন্ত্রহীন করে পাকিস্তানী আমলের বৈষম্য আমাদের ঘাড়ে চাপিয়ে দিয়েছে। সরকারের প্রতিহিংসার রাজনীতির কারনে বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জামিন হচ্ছেনা। সরকারের অঙ্গুলী হেলনে বিচার বিভাগে আটকে আছে বেগম জিয়ার মুক্তি প্রক্রিয়া।

তিনি বলেন, তাই এ বৈষম্যমূলক বিচার ব্যবস্থার কাছে আর বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি চাইবো না, এখন থেকে শুরু হবে একদফা আন্দোলন। আর সেই আন্দোলনে দেশবাসীকে সাথে নিয়ে গণতন্ত্রের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করবো এবং দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনবো।

১২ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে নারায়ণগঞ্জ আদালতপাড়ায় জেলা জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের উদ্যোগে আয়োজিত সমাবেশে প্রধাণ অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। মানববন্ধন শেষে সাখাওয়াতের নেতৃত্বে একটি বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে আদালতপাড়া প্রদক্ষিণ করেন আইনজীবীরা। বিএনপির আইনজীবীদের সমাবেশ চলাকালীন সময়ে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের জাতীয় পরিষদ সদস্য জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান দিপু ও মহানগর আওয়ামীলীগের সেক্রেটারি অ্যাডভোকেট খোকন সাহার নেতৃত্বে আওয়ামীলীগের আইনজীবীরা দফায় দফায় মিছিল করেন এবং আইনাঙ্গনে বিএনপি জামাতকে গুন্ডামী করতে দেয়া হবে বলে শ্লোগান দেন তারা।

সাখাওয়াত হোসেন খান আরো বলেন, আজ প্রায় দুই বছর হতে চললো বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া মিথ্যা মামলায় কারাগারে বন্দি। এ ধরণের একটি মামলায় দেশের যে কোন সাধারণ নাগরিক উচ্চ আদালতে আপিল করলে সাথে সাথে জামিন পেয়ে যান কিন্তু শুধুমাত্র ক্ষমতা টিকিয়ে রাখতে বিচার ব্যবস্থার কাঁধে বন্দুক রেখে এই অবৈধ সরকার বেগম খালেদা জিয়ার জামিন নিয়ে টালবাহানা করছে। কিন্তু বাংলার মানুষ জেড়ে উঠেছে, তাদের বিবেক জাগ্রত হয়েছে। তারা দলমত নির্বিশেষে সকলের ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তুলে এই স্বৈরাচারী সরকারকে এই দেশ থেকে উৎখাত করবে। জালিম সরকারের পতনের সেই একদফা আন্দোলনে শরিক হওয়ার জন্য সকলকে আহবান জানাচ্ছি।

ছবি- আদালতপাড়ায বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

নারায়ণগঞ্জ জেলা জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সভাপতি অ্যাডভোকেট সরকার হুমায়ুন কবিরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিলে আরো উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খোরশেদ আলম মোল্লা, সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট আজিজুল হক হান্টু, অ্যাডভোকেট মশিউর রহমান শাহিন, অ্যাডভোকেট রকিবুল হাসান শিমুল, অ্যাডভোকেট গোলজার হোসেন, অ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ জাকির, অ্যাডভোকেট মানিক মিয়া, অ্যাডভোকেট শাহ মাজহারুল হক মাজহার, অ্যাডভোকেট এইচএম আােনয়ার প্রধান, অ্যাডভোকেট আলম খান, অ্যাডভোকেট সালাউদ্দীন ভূঁইয়া সবুজ, অ্যাডভোকেট জিল্লুর রহমান মুকুল, অ্যাডভোকেট হেলাল উদ্দীন সরকার, অ্যাডভোকেট সিদ্দিকুর রহমান, অ্যাডভোকেট একেএম ওমর ফারুক নয়ন, অ্যাডভোকেট মাহামুদুল হক আলমগীর, অ্যাডভোকেট হেলাল উদ্দীন চৌধুুরী, অ্যাডভোকেট সুমন মিয়া, অ্যাডভোকেট কায়েস চৌধুরী টুটুল, অ্যাডভোকেট লিজা আক্তার, অ্যাডভোকেট মাসুদা বেগম শম্পা, অ্যাডভোকেট রোকন উদ্দীন, অ্যাডভোকেট আসমা হেলেন বিথি, অ্যাডভোকেট হৃদয়, অ্যাডভোকেট ফজলুর রহমান ফাহিম, অ্যাডভোকেট আনজুম আহমেদ রিফাত, অ্যাডভোকেট রাসেল মিয়া, অ্যাডভোকেট আমিনুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট সারোয়ার জাহান, অ্যাডভোকেট নুুরুল কাদির সোহাগ, অ্যাডভোকেট হাবিবুর রহমান, অ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ, অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান, অ্যাডভোকেট কেএম সুমন, অ্যাডভোকেট মাসুদুর রহমান মাসুদ, অ্যাডভোকেট সারোয়ার চৌধুরী সহ কয়েকশত আইনজীবীগণ।

অন্যদিকে জানাগেছে, বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের আপিল বিভাগে বেগম খালেদা জিয়ার মামলার জামিন শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। বেগম খালেদার জামিন আবেদন না মঞ্জুর করেছেন আপিল বিভাগ।